দায়িত্ব বুঝে নিল ইসলামী ব্যাংকের নতুন পর্ষদ

প্রকাশিত: ৬:৪৪ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১০, ২০১৭

দায়িত্ব বুঝে নিল ইসলামী ব্যাংকের নতুন পর্ষদ
নিজস্ব প্রতিবেদক
দায়িত্ব বুঝে নিল ইসলামী ব্যাংকের নতুন পর্ষদ

আরাস্তু খান

ইসলামী ব্যাংকের  পরিচালনা পর্ষদে অনেক আগেই পরিবর্তন করা দরকার ছিল বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। কারণ দীর্ঘদিন থেকে এ ব্যাংকটি সরাসরি জামায়াতে ইসলামী রাজনীতির অর্থায়নের সঙ্গে জড়িত ছিল। অর্থনীতিবিদ আবুল বারকাতের মৌলবাদের অর্থনীতি গবেষণায় এ ব্যাংকটির প্রতি তিনি ইঙ্গিত করেছিলেন। এ ছাড়া জামায়াতের অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কথাও তুলে ধরা হয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে নিরাপত্তা বিশ্লেষকরা সরাসরি ইসলামী ব্যাংকের সংস্কারের প্রস্তাব তুলেছিলেন এবং সরকার ব্যাংকিং পরিচালনা পর্ষদে এ পরিবর্তন আনে। এদিকে দায়িত্বশীল সূত্রমতে ইসলামী ব্যাংকে নিয়োগ প্রক্রিয়া এতদিন নিয়ন্ত্রণ করতেন জামায়াতে ইসলামীর আমির নিজেই। এই কারণে হিন্দু সম্প্রদায় ভিন্ন মতাবলম্বী রাজনীতিক বিশ্বাসী মানুষ ও নারীদের নিয়োগে বাধা ছিল। বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পরও গত আট বছর এই নীতিমালা ইসলামী ব্যাংক কর্তৃপক্ষ বহাল রেখেছিলেন। এসব বিষয়ে কাজ শুরু করছে নতুন পরিচালনা পর্ষদ।

 

 

এদিকে দায়িত্ব বুঝে নিল ইসলামী ব্যাংকের নতুন পরিচালনা পর্ষদ। গতকাল নতুন এই পর্ষদ সদস্যরা ব্যাংকের সার্বিক কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক দায়িত্ব গ্রহণ করেন। পর্ষদের চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ পরিচালকরা তাদের দায়িত্ব বুঝে নেন। গত ৫ ডিসেম্বর ইসলামী ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের ২৪০তম সভায় নতুন পর্ষদ নিয়োগ দেওয়া হয়।

সাবেক সচিব আরাস্তু খান ইসলামী ব্যাংকের নতুন চেয়ারম্যান হয়েছেন। আরাস্তু খান এর আগে বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংকের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ইতিপূর্বে তিনি পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমএসএস এবং যুক্তরাষ্ট্রের হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাস্টার্স ইন পাবলিক অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এমপিএ) ডিগ্রিধারী আরাস্তু খানের জন্ম ১৯৫৬ সালে মানিকগঞ্জ জেলার গরপাড়া গ্রামে।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে এসেছেন নির্বাহী কমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক সৈয়দ আহসানুল আলম পারভেজ। ব্যাংকিং ও বিনিয়োগ বিষয়ে বিশেষজ্ঞ প্রফেসর আলম চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের সিনিয়র অধ্যাপক ও প্রাক্তন চেয়ারম্যান। তিনি সাধারণ বীমা করপোরেশন এবং রূপালী ব্যাংকের পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে তিনি ব্যুরো অব ইনভেস্টমেন্ট অ্যান্ড ইকনমিক রিসার্চের চেয়ারম্যান এবং চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন চেম্বারের পরিচালক। তিনি রাজশাহী ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমফিল ও মাস্টার্স সম্পন্ন করে ব্যবসায় প্রশাসন বিষয়ে দীর্ঘ সময় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা করেছেন। আরেক ভাইস চেয়ারম্যান ইউসিফ আবদুল্লাহ আল-রাজী অন্যতম বিদেশি পরিচালক। তিনি ১৯৯১ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েস্টার্ন মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উন্নয়ন প্রশাসনে এমএ এবং ১৯৮৬ সালে সৌদি আরবের কিং সউদ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমবিএ ডিগ্রি লাভ করেন।

এক্সিকিউটিভ কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন মেজর জেনারেল (অব.) ইঞ্জিনিয়ার আবদুল মতিন। তিনি ১৯৭৮ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মাস্টার জেনারেল অব অর্ডিন্যান্স ও প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসারসহ (পিএসও) বিভিন্ন পদমর্যাদায় দায়িত্ব পালন করেন। বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের অধীনে জাতীয় স্মার্ট পরিচয়পত্র প্রস্তুতি কমিটির চেয়ারম্যানসহ বিআরটিএ, বাংলাদেশ অর্ডন্যান্স ফ্যাক্টরি, বাংলাদেশ মেশিন টুলস ফ্যাক্টরি ও বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে নীতিনির্ধারণী ভূমিকা পালন করেন।

অডিট কমিটি চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন ড. মো. জিল্লুর রহমান। তিনি ৩৬ বছরের ব্যাংকিং ক্যারিয়ারে বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের এমডি এবং জনতা ব্যাংক, রূপালী ব্যাংক ও বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকে বিভিন্ন পদমর্যাদায় দায়িত্ব পালন করেন। আইসিবির পরিচালক এবং বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংকের পরিচালক এবং অডিট কমিটির চেয়ারম্যান ছিলেন। রিস্ক ম্যানেজমেন্ট কমিটি চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন মো. আবদুল মাবুদ। তিনি বাংলাদেশ পুলিশের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক এবং পাসপোর্ট অধিদফতরের মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

আইবিএফ চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন সৈয়দ মঞ্জুরুল ইসলাম। তিনি স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় এবং নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সাবেক সচিব। বাখরাবাদ গ্যাস সিস্টেম, যমুনা পেট্রোলিয়াম ও স্ট্যান্ডার্ড এশিয়াটিক অয়েল কোম্পানির সাবেক চেয়ারম্যান এবং বাংলাদেশ শিল্প ব্যাংক (বর্তমানে বিডিবিএল), আইএফআইসি ব্যাংক, ন্যাশনাল হাউজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স লি., বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশন, বিটিসিএল, ইস্টার্ন রিফাইনারি লি. ও ইন্ডাস্ট্রিয়াল প্রমোশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট কোম্পানিসহ সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।–বাংলাদেশ প্রতিদিন

এই সংবাদটি 6 বার পঠিত হয়েছে

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com