খালেদা জিয়ার নির্বুদ্ধিতার কারণে আজ বিতাড়িত: অর্থমন্ত্রী  

প্রকাশিত: ৮:৫৩ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২০, ২০১৭

imagesডেস্ক রিপোর্ট :

বেগম খালেদা জিয়ার নির্বুদ্ধিতার কারণে আজ তিনি রাজনীতি থেকে বিতাড়িত হয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। তিনি বলেন, ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে অংশ নিলে বিএনপি হয়তো ক্ষমতায় যেতে পারতেন, অথবা বিরোধীদলে থাকতে পারতেন। কিন্তু তার নির্বুদ্ধিতার করণে আজ এই দল বিতাড়িত। সেসময়ে নির্বাচনে অংশ না নিয়ে বিএনপি ভুল করেছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।
বৃহস্পতিবার আইপিএস-ইন্টার ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসের রিজিওনাল কনফারেন্সে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন। রাজধানীর বনানীস্থ পলিসি রিসার্চ ইন্সটিটিউটে (পিআরআই) বৃহস্পতিবার এই সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। পিআরআইর নির্বাহী পরিচালক ড. আহসান এইচ মনসুরের সঞ্চালনায় আইপিএসএ এর চেয়ারম্যান ড. জিল্লুর আর খান, পিআরআইর ভাইস চেয়ারম্যান ড. সাদিক আহমেদ, ড. তাজিন মুরশিদ পৃথকভাবে তিনটি নিবন্ধ উপস্থাপন করেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী বলেন, ৭ শতাংশ প্রবৃদ্ধির ধারা অব্যহত রাখতে হলে স্থানীয় প্রশাসনিক বিকেন্দ্রীকরণ প্রয়োজন। প্রশাসনিক সংস্কার প্রয়োজন, যার মাধ্যমে স্থানীয় সরকারের হাতে ক্ষমতা যেতে পারে। স্থানীয় প্রশাসন সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ড বাস্তবায়ন করছে। কিন্তু এই বাস্তবায়ন হচ্ছে স্থানীয় সরকারের নিম্নতম কর্মচারীদের মাধ্যমে। এটা পরিবর্তন করা খুবই কষ্টকর।
এর কারণ উল্লেখ করে অর্থমন্ত্রী বলেন, আমাদের ১৮ লাখ সরকারি কর্মচারী রয়েছেন যারা এই ক্ষমতা ছাড়তে চান না। এ বিষয়ে তারা নিজেরাই নিজেদের প্রতিদ্বন্দ্বী। এজন্য রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত নেওয়া প্রয়োজন বলে তিনি উল্লেখ করেন।
তিনি আরো বলেন, সরকারের ১৮ লাখ কর্মচারীকে জেলা পর্যায়ে স্থানীয় সরকারে পাঠিয়ে দিতে হবে, তাহলে পরিবর্তন সম্ভব। বিশ্বের ৫০ থেকে ৬০টি দেশ রয়েছে যাদের বাংলাদেশ থেকেও কম জনসংখ্যা এবং কম আয়তন রয়েছে। সে হিসেবে আমরা ভালো অবস্থানে রয়েছি। সরকারি সেবাকে জেলা পর্যায়ে নিয়ে যেতে হবে। এখন আমাদের সব কিছুর জন্য রাজধানীতে আসতে হচ্ছে। এ ধরনের পরিবর্তনের মাধ্যমে প্রবৃদ্ধির হার ৮ থেকে ১০ শতাংশে নিয়ে যাওয়া সম্ভব বলে তিনি মনে করেন।
অর্থমন্ত্রী বলেন, এ ধরনের পরিবর্তনের বিষয়ে অনেকেই বলেন, প্রচুর অর্থ অপচয় হবে, কিন্তু আমি এটা মনে করি না। দুর্নীতির বিষয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, আমরা দুর্নীতি রোধে শ্রেষ্ঠ পদ্ধতি ব্যবহার করছি আর সেটি হলো তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার। তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে দেশে দুর্নীতি কমে এসেছে। শতাধিক পেমেন্ট ব্যবস্থা অনলাইনে হওয়ার ফলে আর্থিক লেনদেনে দুর্নীতি কমে এসেছে।
গত আট দশ বছরে দেশের কর ব্যবস্থার অনেক উন্নতি হয়েছে দাবি করে অর্থমন্ত্রী বলেন, আমরা কর আদায়ে অনেক গুরুত্ব দিয়েছি বলে এটি সম্ভব হয়েছে। আট বছর আগে ৯৬ হাজার কোটি টাকার বাজেট থেকে এ বছর সাড়ে তিন লাখ কোটি টাকার বাজেট দেওয়া সম্ভব হয়েছে। আগামী বাজেটের আকার ৪ লাখ কোটি টাকা ছাড়িয়ে যাবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

এই সংবাদটি 7 বার পঠিত হয়েছে

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com