আ.ন.ম শফিকুল হক ছিলেন আপাদমস্তক সৎ মানুষ: কেমুসাস’র শোকসভায় বক্তারা

প্রকাশিত: ৪:১২ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২০, ২০১৯

আ.ন.ম শফিকুল হক ছিলেন আপাদমস্তক সৎ মানুষ: কেমুসাস’র শোকসভায় বক্তারা

সিলেট রিপোর্ট :
দেশের প্রাচীনতম সাহিত্য প্রতিষ্ঠান কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের সভাপতি আ.ন.ম. শফিকুল হক স্মরণে সাহিত্য সংসদ আয়োজিত শোকসভা ও দোয়া মাহফিলে বক্তারা বলেছেন, আ.ন.ম শফিকুল হক ছিলেন একজন আপাদমস্তক সৎ মানুষ। তিনি সারাজীবন ত্যাগ করে গেছেন, নিজের জন্যে কিছু করেননি। এ ধরনের নির্লোভ ত্যাগী মানুষ আমাদের সমাজে বিরল। আমাদের কামনা হোক তার মতো যেন আরো অসংখ্য ত্যাগী মানুষের জন্ম হয়, যাদের ত্যাগের বিনিময়ে আমাদের সমাজ এগিয়ে যাবে।

সাহিত্য সংসদের সাহিত্য আসর কক্ষে ১৯ আগস্ট, সোমবার সন্ধ্যায় আয়োজিত সভায় সভাপতিত্ব করেন সাহিত্য সংসদের সহ-সভাপতি মুহম্মদ বশিরুদ্দিন।

সাহিত্য সংসদের সহ-সভাপতি সেলিম আউয়ালের সঞ্চালনায় শোকসভার শুরুতে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন বিশিষ্ট সাংবাদিক সাঈদ নোমান এবং আলোচনায় অংশ নেন সাহিত্য সংসদের সাবেক সভাপতি হারুনুজ্জামান চৌধুরী, সংসদের প্রবীণ কর্মকর্তা বীর মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট মুজিবুর রহমান চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক দেওয়ান মাহমুদ রাজা চৌধুরী, সিলেট স্টেশন ক্লাবের প্রেসিডেন্ট এডভোকেট এমাদ উল্লাহ শহিদুল ইসলাম শাহিন, দৈনিক উত্তরপূর্ব সম্পাদক শফিউল আলম নাদেল, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জুবায়ের সিদ্দিকী, সংসদের কোষাধ্যক্ষ সৈয়দ মুহিবুর রহমান, সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাবের প্রেসিডেন্ট মুহিত চৌধুরী, শাবিপ্রবি’র ডেপুটি রেজিস্ট্রার আহমদ মাহবুব ফেরদৌস, সংসদের সাহিত্য সম্পাদক এডভোকেট আব্দুল মুকিত অপি, কার্যকরী পরিষদ সদস্য ড. মোস্তাক আহমদ দীন, ছয়ফুল করিম চৌধুরী হায়াত, এডভোকেট আবদুস সাদেক লিপন, জাহেদুর রহমান চৌধুরী, সৈয়দ মোহাম্মদ তাহের, শিশু একাডেমির সাবেক জেলা সংগঠক জামান মাহবুব, সাবেক সহ-সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মবনু, অবসরপ্রাপ্ত ড্রাগ সুপার এম.এ. জলিল চৌধুরী, অধ্যাপক আবদুল হান্নান সেলিম, সাবেক সাহিত্য সম্পাদক নাজমুল আনসারী, বেলাল আহমদ চৌধুরী, সাংবাদিক আমিরুল ইসলাম চৌধুরী এহিয়া, মরহুমের সহোদর মো. নজরুল হক, আবুল হোসেন, দোয়া পরিচালনা করেন বিশিষ্ট ইসলামি ব্যক্তিত্ব মাওলানা রওনক আহমদ। সভার শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করেন সাহিত্যকর্মী আবদুল কাদির জীবন।

হারুনুজ্জামান চৌধুরী বলেন, আ.ন.ম. শফিকুল হক ছিলেন একজন ত্যাগী নেতা, সজ্জন মানুষ। আমাদের কামনা থাকবে সমাজে তার মতো আরো অসংখ্য সৎ মানুষের জন্ম হোক।

মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট মুজিবুর রহমান চৌধুরী বলেন, আ.ন.ম. শফিক কখনো জনবিচ্ছিন্ন হননি, তিনি আজীবন জনগণের সাথে ছিলেন।

এডভোকেট এমাদ উল্লাহ শহীদুল ইসলাম শাহীন বলেন,আ.ন.ম. শফিকুল হকের চিত্ত ছিলো সাহসিকতাপূর্ণ। তিনি ছিলেন গণমুখী রাজনীতিবিদ এবং গণমানুষের সংগ্রামে আজীবন নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন। এজন্যে বিত্তশালী হননি তিনি, কিন্তু চিত্তবান ছিলেন।

দৈনিক উত্তরপূর্ব সম্পাদক শফিউল আলম নাদেল বলেন, আ.ন.ম. শফিকুল হকের জীবন আমাদেরকে শিক্ষা দেয় বিলম্বে হলেও ত্যাগী মানুষের মূল্যায়ন হয়। তার জীবন রাজনৈতিক কর্মীদের জন্যে অনুপ্রেরণাদায়ক।

দেওয়ান মাহমুদ রাজা চৌধুরী বলেন, আচার আচরণে তিনি একজন রুচিশীল মানুষ ছিলেন। তার রুচিসম্মত দৃষ্টিভঙ্গি ছিলো সব কিছুতে।

সভাপতির বক্তব্যে মুহম্মদ বশিরুদ্দিন বলেন, আ.ন.ম. শফিকুল হক ছিলেন আমার আত্মার আত্মীয়। তার সাথে ভিন্নমত পোষণকারীদেরকেও তিনি দূরে ঠেলে দিতেন না। এজন্যে তার সাথে আমার অনেক বিষয়ে মতান্তর হলেও মনান্তর হয়নি।

এই সংবাদটি 17 বার পঠিত হয়েছে

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com