সুনামগঞ্জেে বন্যা, সিলেটের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

প্রকাশিত: ৩:৪২ অপরাহ্ণ, জুলাই ১১, ২০২০

সিলেট রিপোর্টঃ আবারো বন্যার পানিতে প্লাবিত হলো সুনামগঞ্জের অধিকাংশ এলাকা এবং সিলেটের কয়েকটি উপজেলার নিম্নাঞ্চলের মানুষ। উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও টানা বৃষ্টিতে এ দুর্ভোগে পড়েন তারা। সুরমা, কুশিয়ারা, সারিসহ সবকটি নদ-নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

শনিবার (১১ জুলাই) সকাল পর্যন্ত জেলার গোয়াইনঘাট, জৈন্তাপুর, কানাইঘাট ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার নিম্নাঞ্চল পানিতে তলিয়ে গেছে। তলিয়ে গেছে ফসলি জমি ও মাছের খামার। নদী তীরের অনেক এলাকার সড়কও পানিতে তলিয়ে গেছে। ফলে ভোগান্তিতে পড়েছেন জনগণ।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের তথ্য অনুসারে, শনিবার (১১ জুলাই) সকাল ৯টায় কানাইঘাট পয়েন্টে সুরমা নদীর পানি বিপৎসীমার ৭১ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। একই সময়ে সারি নদীর সারিঘাট পয়েন্টে বিপৎসীমার ৩ সেন্টিমিটার ও কুশিয়ারার ফেঞ্চুগঞ্জ পয়েন্টে বিপদসীমার ১০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হয়।

পাউবোর তথ্য মতে, কানাইঘাটে শুক্রবার (১০ জুলাই) সন্ধ্যা ৬টা থেকে শনিবার (১১ জুলাই) সকাল ৬টা পর্যন্ত ৮২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়। একই সময় পর্যন্ত সিলেটে ৫৫ মিলিমিটার ও শেওলায় ৩৬ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড হয়। রাতভর বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকায় নদ-নদীর পানি বেড়েছে। নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন চার উপজেলার কয়েক হাজার মানুষ।

এ নিয়ে দুই মাসের ব্যবধানে টানা তৃতীয়বারের মতো বন্যার কবলে পড়লেন সিলেটের নিম্নাঞ্চলের মানুষ। করোনাকালে আকষ্মিক বন্যায় তাদের দুর্ভোগ আরও বেড়েছে। গত মাসের শেষ সপ্তাহের বন্যার ক্ষতি পুষিয়ে ওঠার আগেই আবারও বন্যা হয়।

কানাইঘাটের কৃষকরা জানান, ‘বীজতলায় ধানের চারা গজিয়েছিল সেগুলো বন্যায় পুরোটাই নষ্ট হয়ে যায়। পরে পানি নামার পর ফের বীজতলা প্রস্তুত করি। এখন আবার পানিতে তলিয়ে গেলো।’

এই সংবাদটি 16 বার পঠিত হয়েছে

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com