শনিবার, ১৭ জুন ২০১৭ ১২:০৬ ঘণ্টা

জৈন্তাপুরে প্রবাসীর স্ত্রী ২ সন্তানের জননীর রহস্য জনক মৃত্যু

Share Button

জৈন্তাপুরে প্রবাসীর স্ত্রী ২ সন্তানের জননীর রহস্য জনক মৃত্যু

জৈন্তাপুর প্রতিনিধি : সিলেটের জৈন্তাপুরে কাতার প্রবাসীর স্ত্রী ২ কন্যা সন্তানের জননী ‘অাত্মহত্যা’র খবর পাওয়াগেছে।
এ নিয়ে এলাকায় ধুম্রজ্বালের সৃষ্টি হয়েছে৷ এলাকাবাসী সূত্রে যানা যায়- গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১টায় ঘরের বর্গার সাথে রশি জড়ীয়ে জৈন্তাপুর উপজেলার শ্যামপুর (চান্দঘাট) গ্রামের রাজা মিয়ার ছেলে কাতার প্রবাসী ফখরুল ইসলামের স্ত্রী ২ সন্তানের জননী খাদিজা বেগম (২৫) সবার অজান্তে অাত্মহত্যা করে৷ হঠাৎ করে ঘরের লোকজন খাদিজাকে ডাকাডাকি করলে খাদিজার কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে থাকে ঘরের একটি কক্ষের বর্গার সাথে ঝুলতে দেখেন৷
বিষয়টি তাৎক্ষনিক ভাবে খাদিজার পিতা উপজেলার হেমু গ্রামের বুলবুল দর্জীকে জানানো হয়৷ সংবাদ পেয়ে তারা বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করেন৷

সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে নিহতের লাশ উদ্ধার করে৷ সুরতহাল রির্পোট তৈরী করে খাদিজার লাশ অধিকতর তদন্তের জন্য সিলেট এম.এ.জি ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করে৷

এলাকাবাসী সূত্রে অারও জানায় দীর্ঘ দিন হতে পারিবারিক দ্বন্দ অাসছে৷ এ বিষয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ বলেন- নিহতের লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল রির্পোট তৈরী করে অধিকতর তদন্তের জন্য সিলেটে প্রেরন করা হয়েছে৷ ময়না তদন্তের পর জানা যাবে এটি অাত্মহত্যা নাকি হত্যা৷ এ বিষয়ে জানতে খাদিজার পিতা বুলবুল দর্জীর সাথে একাধিকবার মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে ফোন রিসিভ হয়নি৷

এই সংবাদটি 1,076 বার পড়া হয়েছে

পরমানু শক্তিধর দেশ পকিস্তান বিশ্বের সন্ত্রাসবাদ নির্মূলে ইসলামি দেশগুলোর সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছে। সৌদি আরবের উদ্যোগে মুসলিম সামরিক জোটভুক্ত দেশগুলোর সেনাদের এই প্রশিক্ষণ দেয়া হবে।বাংলাদেশও এই জোটের অন্তর্ভুক্ত।  পাকিস্তান সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এসব দেশের সামরিক বাহিনীকে আধুনিক প্রশিক্ষণ, প্রযুক্তিগত সহায়তা ও প্রয়োজনীয় সামগ্রী সরবরাহ করবে দেশটি। জাতীয় নিরাপত্তা নীতির মতো বিষয়গুলোতেও সহায়তা দেবে পাকিস্তান। সামরিক কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলার পরই এ বিষয়ে পাক প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন দেবেন।  ইসলামি সামরিক জোটের ভূমিকা নিয়ে ইতোমধ্যে বিস্তারিত কথা বলেছে পাকিস্তান ও সৌদি আরব। সম্প্রতি জোটকে এগিয়ে নিতে পাকিস্তানকে অনুরোধও করেছে সৌদি প্রশাসন। এখানে পাক প্রশাসনের ভূমিকাকে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে দেখা হচ্ছে।  পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় সরকার সূত্র জানিয়েছে, দুই ভ্রাতৃপ্রতীম দেশের মধ্যে সম্পর্ক আরো ঘনিষ্ঠ হয়েছে। কূটনৈতিক পর্যায়ে সৌদি আরব ও ইরানের মধ্যে উত্তেজনা কমিয়ে আনতেও কাজ করেছে পাকিস্তান। দেশটি এক্ষেত্রে তার ভূমিকা অব্যাহত রেখেছে।  সৌদি আরবের পক্ষ থেকেও বলা হয়েছে, যেকোনো সংকটপূর্ণ সময়ে তারা পাকিস্তানের পক্ষে দাঁড়াবে। পবিত্র কাবা শরিফসহ সৌদি আরবের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তায় সম্ভাব্য সব সহায়তা দেয়ার কথা জানিয়েছে পাক প্রশাসন।  ইসলামি সামরিক জোটভুক্ত দেশগুলোর নিরাপত্তা দিতে সমন্বিত একটি নীতি প্রণয়নের ব্যাপারেও একমত দুই দেশ। স্থল, নৌ ও আকাশ- সবক্ষেত্রে এই নীতি প্রণয়ন করা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে দেশটি। সূত্র: দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন
পরমানু শক্তিধর দেশ পকিস্তান বিশ্বের সন্ত্রাসবাদ নির্মূলে ইসলামি দেশগুলোর সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছে। সৌদি আরবের উদ্যোগে মুসলিম সামরিক জোটভুক্ত দেশগুলোর সেনাদের এই প্রশিক্ষণ দেয়া হবে।বাংলাদেশও এই জোটের অন্তর্ভুক্ত। পাকিস্তান সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এসব দেশের সামরিক বাহিনীকে আধুনিক প্রশিক্ষণ, প্রযুক্তিগত সহায়তা ও প্রয়োজনীয় সামগ্রী সরবরাহ করবে দেশটি। জাতীয় নিরাপত্তা নীতির মতো বিষয়গুলোতেও সহায়তা দেবে পাকিস্তান। সামরিক কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলার পরই এ বিষয়ে পাক প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন দেবেন। ইসলামি সামরিক জোটের ভূমিকা নিয়ে ইতোমধ্যে বিস্তারিত কথা বলেছে পাকিস্তান ও সৌদি আরব। সম্প্রতি জোটকে এগিয়ে নিতে পাকিস্তানকে অনুরোধও করেছে সৌদি প্রশাসন। এখানে পাক প্রশাসনের ভূমিকাকে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে দেখা হচ্ছে। পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় সরকার সূত্র জানিয়েছে, দুই ভ্রাতৃপ্রতীম দেশের মধ্যে সম্পর্ক আরো ঘনিষ্ঠ হয়েছে। কূটনৈতিক পর্যায়ে সৌদি আরব ও ইরানের মধ্যে উত্তেজনা কমিয়ে আনতেও কাজ করেছে পাকিস্তান। দেশটি এক্ষেত্রে তার ভূমিকা অব্যাহত রেখেছে। সৌদি আরবের পক্ষ থেকেও বলা হয়েছে, যেকোনো সংকটপূর্ণ সময়ে তারা পাকিস্তানের পক্ষে দাঁড়াবে। পবিত্র কাবা শরিফসহ সৌদি আরবের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তায় সম্ভাব্য সব সহায়তা দেয়ার কথা জানিয়েছে পাক প্রশাসন। ইসলামি সামরিক জোটভুক্ত দেশগুলোর নিরাপত্তা দিতে সমন্বিত একটি নীতি প্রণয়নের ব্যাপারেও একমত দুই দেশ। স্থল, নৌ ও আকাশ- সবক্ষেত্রে এই নীতি প্রণয়ন করা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে দেশটি। সূত্র: দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন