শনিবার, ০৪ নভে ২০১৭ ১১:১১ ঘণ্টা

বিপিএল বর্জনের ঘোষণা জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের

Share Button

বিপিএল বর্জনের ঘোষণা জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের

স্টাফ রিপোর্টার :

টিকেট নিয়ে অনিয়ম-অব্যবস্থাপনার অভিযোগে সিলেটে অনুষ্ঠেয় বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ(বিপিএল) বর্জনের ঘোষণা দিয়েছে সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ। শুক্রবার সন্ধ্যায় জেলা পরিষদ মিলনায়তনে দলের এক যৌথ সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। এর আগে একই স্থানে দলের উদ্যোগে জেল হত্যা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান।
জেলা আওয়ামী লীগের দফ্তর সম্পাদক সাইফুল আলম চৌধুরী রুহেল জানান, জেল হত্যা দিবসের আলোচনা সভায় বিপিএল-এর অনিয়ম-অব্যবস্থাপনা নিয়ে আলোচনা হয়। সভায় বলা হয়, বিপিএল-এর জন্য ২৫ হাজার টিকিট নির্ধারিত আছে। কিন্তু, দলের নেতা-কর্মীরা কোন টিকেট পাননি। অথচ বিভিন্ন স্থানে ২শ’ টাকার টিকেট ৫শ’ টাকা এবং ৫শ’ টাকার টিকেট দুই হাজার টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। সভায় এও বলা হয়, জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি-সেক্রেটারীকেও কোন ভিআইপি টিকেট দেয়া হয়নি। জনৈক ব্যক্তি জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যদের ২শ’ টাকা দরের দুটি করে টিকেট দস্তখত নিয়ে প্রদান করা হচ্ছে-যা তাদের জন্য অবমাননাকর। অথচ ব্যক্তিগত যোগাযোগের কারণে অন্য দলের অনেক লোক টিকেট বাগিয়ে নিয়েছে। জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের যৌথ সভায় দলের নেতা-কর্মীদের আবেগ-অনুভূতির প্রতি সম্মান জানিয়ে বিপিএল বর্জনের সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানান আওয়ামী লীগ নেতা রুহেল।

শনিবার থেকে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শুরু হচ্ছে বিপিএল-এর ৫ম আসর। এবারই প্রথমবারের মতো সিলেটে অনুষ্ঠিত হচ্ছে বিপিএলের। তার উপর এবার রয়েছে নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজি সিলেট সিক্সার্স। ফলে টিকিট নিয়ে সিলেটে চলছে হাহাকার। অনেকেই পাননি বিপিএলের টিকিট। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী বলেন, আমাদের অনেক নেতাকর্মী টিকিট পাননি। টিকিট নিয়ে অনেক অনিয়মের অভিযো্গ আসছে। ফলে শনিবার প্রথম দিন আমরা কেউ মাঠে যাবো না। আমি বিপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান বয়কটের আহবান জানাচ্ছি।

তার এই আহ্বানের সাথে সাথে উপস্থিত নেতাকর্মীরা তাকে উচ্চস্বরে সমর্থন জানান।

সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান বলেন, শফিকুর রহমান চৌধুরী তাঁর বক্তব্যকালীন সময়ে অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত নেতাকর্মীদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে বলেন আমাদের দল ও অঙ্গসংগঠনের অনেক নেতাকর্মী বিপিএল’র টিকেট পাননি। তাই আমি বিপিএল’র উদ্বোধনী আয়োজন দেখতে না যাওয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি। এসময় উপস্থিত নেতাকর্মীরা তাকে সমর্থন দেন। আমরাও সমর্থন দিয়েছি।

এই সংবাদটি 1,043 বার পড়া হয়েছে