বৃহস্পতিবার, ০৪ জানু ২০১৮ ০১:০১ ঘণ্টা

জামিয়া দারুল কুরআনে সিলেটে মাওলানা বাবুনগরী : দেশে ইসলামই থাকবে

Share Button

জামিয়া দারুল কুরআনে সিলেটে মাওলানা বাবুনগরী : দেশে ইসলামই থাকবে

সিলেট রিপোর্ট: জামিয়া দারুল কুরআনে সিলেটের ৬ সালা দস্তারবন্দী মহাসম্মেলনে বক্তারা বলেছেন কওমী মাদরাসা জঙ্গিবাদ নয় আলেম উলামা তৈরির কারখানা। ইসলাম ও মুসলমানের রক্ষাকবচ। দেশ ও জাতির সকল ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে অতন্দ্র প্রহরী। বক্তাগণ কওমি শিক্ষার বিপ্লবী পরিবর্তনের জন্য জামিয়া দারুল কুরঅানের ভূয়সী প্রসংশা করে ফুযালাদের সর্বাঙ্গীণ মঙ্গল কামনা করেন। গতকাল বুধবার দুপুর ১২টায় শহরতলির জাহানপুরস্থ ক্যাম্পাস সংলগ্ন মাঠে সম্মেলন শুরু হয়। মধ্যরাত পর্যন্ত সম্মেলন চলে। প্রায় তিনশত ফুযালাসহ দেশের প্রত্যন্ত জনপদ থেকে বিপুল সংখ্যক আলেম উলামা সম্মেলনে অংশ নেন। জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্মমহাসচিব, সাবেক সংসদ সদস্য মাওলানা শাহীনূর পাশা চৌধুরী এডভোকেট প্রতিষ্ঠিত জামিয়া দারুল কুরআন সিলেট এর
দস্তারবন্দী সম্মেলনে মোট ৩টি অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন যথাক্রমে জামিয়ার শায়খুল হাদীস, খলিফায়ে মাদানি আল্লামা অাব্দুল মোমিন শায়খে ইমামবাড়ী, মাওলানা শায়খ জিয়াউদ্দীন, মাওলানা মুফতি মুহিব্বুল হক গাছবাড়ী ও মাওলানা অাতাউর রহমান শায়খে বহরগ্রামী।জামিয়ার মুহাদ্দিস মাওলানা তৈয়্যিবুর রহমান চৌধুরী, মাওলানা এহতেশামুল হক কাসেমী ও কে.এম ফয়েজ আহমদের যৌথ পরিচালনায় দস্তারবন্দী মহাসম্মেলনে বিগত ৬ বছরের ২৫৪ অালেম ও ৫১ জন হাফিজে কুরঅানকে মাথায় দস্তারে ফযিলত (পাগড়ি পড়িয়ে দেন) অতিথি বৃন্দ। 
মহাসম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব অাল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন প্রখ্যাত মুফাসসিরে কুরঅান, শায়খুল হাদীস অাল্লামা তাফাজ্জুল হক হবিগঞ্জী, সাবেকমন্ত্রী শায়খুল হাদীস অাল্লামা মুফতি ওয়াক্কাস, আল্লামা নুরুল ইসলাম খান, আল্লামা অাব্দুস শহীদ গলমুকাপনী, প্রিন্সিপাল মাওলানা অাব্দুল বছির।
অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মাওলানা হাফিজ ইমদাদুল্লাহ শায়খে কাতিয়া, অালহাজ্ব হাফিজ হোসাইন আহমদ বিশ্বনাথী মাওলানা হাম্মাদ আহমদ গাজিনগরী, মাওলানা জুনাইদ অাহমদ কিয়ামপুরী, মাওলানা অাব্দুর রকিব বিশ্বম্বরপুরী, মাওলানা রাকিবুল ইসলাম চট্রগামী প্রমুখ। সম্মেলনে পবিত্র কালামে পাক থেকে তেলাওয়াত করেন বিশ্বজয়ী হাফিজে কুরঅান হাফিজ যাকারিয়া, সঙ্গীত পরিবেশন করেন হাফিজ অাব্দুল করিম দিলদারসহ জাগরণ শিল্পীবৃন্দ। দস্তারবন্দী উপলক্ষে জামিয়ার পক্ষ থেকে একটি সমঋদ্ধ স্মারক প্রকাশিত হয়। আল্লামা শায়খে ইমামবাড়ী ও আল্লামা হবিগঞ্জীর স্বাক্ষর সম্বলিত স্মারকটি ৩০ হাজার টাকায় নিলামে ক্রয় করেন একজন।
হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব অাল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী তার বক্তব্যে বলেন, এদেশে ইসলাম এসেছে হক্কানী উলামায়ে কেরাম ও পীর বুর্যুগদের মেহনতের ফসলে। কোন অপশক্তিই এদেশ থেকে ইসলামকে বিতারিত করতে পারবেনা। প্রয়োজনে ধর্মপ্রাণ তৌহিদী জনতা জীবনের শেষ রক্ত বিন্দু দিয়ে হলেও এদেশের মাটিতে ইসলামের বিজয় পতাকা উড্ডীন করবে। তিনি কঠোর হুশিয়ারী উচ্চারন করে বলেন, কোন অপশক্তিই ইসলামকে এদেশ থেকে বিতারিত করতে পারবেনা। এদেশে ইসলাম আছে,ইসলামই থাকবে-ইনশাআল্লাহ।
শায়খুল হাদীস অাল্লামা তাফাজ্জুল হক হবিগঞ্জী বলেন, উলামায়ে কেরাম যা বলেন, তা জাতির কল্যানের জন্যই বলেন। তিনি সুচি ও মোদির কঠোর সমালোচনা করে বলেন, আসামকে আরেক মিয়ানমার বানানোর পায়তারা করা হচ্ছে। ্আসামের বিপুল সংখ্যক মুসলমানকে বাংলাদেশে ঠেলে দিতে চক্রান্ত চলছে। তিনি আশংখ্যা প্রকাশ করে বলেন, সিলেটের কী হবে? আসাম প্রশ্নে বাংলাদেশের নাগরিকদের সোচ্চার হওয়ার আহবান জানিয়ে বলেন, আসাম থেকে মুসলমানদের নাগরিক অধিকার কেড়ে নেয়া হলে এর জের বাংলাদেশে পড়বেই,তাই এখনই সতর্ক হওয়া উচিত। তিনি আলেম সমাজকে ঐক্যবন্ধ হয়ে ইসলাম ও দেশ বিরোধী সকল অপশক্তির মোকাবেলার আহবান জানান।

এই সংবাদটি 1,142 বার পড়া হয়েছে

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com