সোমবার, ১৩ আগ ২০১৮ ০৯:০৮ ঘণ্টা

সব মোবাইলের জন্য প্রতি মিনিট ২ টাকা এবং সর্বনিম্ন ৪৫ পয়সা

Share Button

সব মোবাইলের জন্য প্রতি মিনিট ২ টাকা এবং সর্বনিম্ন ৪৫ পয়সা

ডেস্ক রিপোর্ট: মোবাইল ফোনে নিজের অপারেটর এবং অন্য অপারেটরে আলাদা কলরেটের নিয়ম বদলে সব মোবাইলের জন্য প্রতি মিনিট সর্বোচ্চ ২ টাকা এবং সর্বনিম্ন ৪৫ পয়সা ট্যারিফ নির্ধারণ করে দিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি।

সেই সঙ্গে মোবাইল অপারেটরদের সঙ্গে অন্যান্য অপারেটরদের ইন্টারকানেকশন চার্জ পুনর্নির্ধারণ করে সোমবার চিঠি পাঠানো হয়েছে চার অপারেটরের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের কাছে।

দেশের সব অপারেটরকে ১৪ অগাস্ট প্রথম প্রহর, অর্থাৎ সোমবার রাত ১২টা ১টা মিনিট থেকেই নতুন ট্যারিফ প্ল্যান কার্যকর করতে বলা হয়েছে ওই চিঠিতে।

এতদিন একই অপারেটরে (অন-নেট) ফোন কলের জন্য গ্রাহকদের প্রতি মিনিটে সর্বনিম্ন ২৫ পয়সা এবং অন্য অপারেটরে (অফ-নেট) ৬০ পয়সা হারে ট্যারিফ প্রযোজ্য হত। এই নিয়ম চলছিল গত সাত বছর ধরে।

নতুন সিদ্ধান্তের ফলে অন-নেট, অফ-নেটের ব্যবধান আর থাকল না। গ্রাহক যে অপারেটরেই কথা বলুক না কেন, প্রতি মিনিটে তার খরচ হবে প্যাকেজ, সময় আর ট্যারিফ প্ল্যান ভেদে ৪৫ পয়সা থেকে ২ টাকার মধ্যে। সেই সঙ্গে আগের মতই ভ্যাট ও অন্যান্য শুল্ক প্রযোজ্য হবে।

এছাড়া অফ-নেট কলে ইন্টারকানেকশন চার্জ ১৪ পয়সা (আইসিএক্স শূন্য দশমিক শূন্য ৪ পয়সা এবং টার্মেনেটিং অপারেটর ১০ পয়সা প্রতি মিনিট) নির্ধারণ করা হয়েছে। এই চার্জ কেবল অপারেটরদের জন্য প্রযোজ্য হবে, গ্রাহকের ওপর নয়।
–বিডি নিউজ

এই সংবাদটি 1,089 বার পড়া হয়েছে

কানাইঘাট প্রতিনিধি :: কানাইঘাটে কবরস্থানের পাশ থেকে রিক্সা চালক আলমগীরের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।  শুক্রবার উপজেলার ঝিঙ্গাবাড়ী ইউনিয়নের দর্জিমাটি গ্রামের কবরস্থানের পাশের একটি গাছ থেকে আলমগীরের লাশ উদ্ধার করে কানাইঘাট থানা পুলিশ।  নিহত আলমগীর উপজেলার ঝিঙ্গাবাড়ী ইউনিয়নের তিনচটি নয়া গ্রামের আবুল হুসেনের ছেলে।  জানা যায়, গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে রাতের খাবার খেয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান আলমগীর । শুক্রবার সকালে আলমগীরকে ঘরে না পেয়ে খোঁজাখুজি শুরু করেন পরিবারের সদস্যরা । একপর্যায়ে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মা কুলসুমা বেগম তাদের পাশ্ববর্তী নিজ দর্জিমাটি গ্রামের কবরস্থানের পূর্বপাশে একটি গাছের সাথে গলায় রশি লাগানো ঝুলন্ত অবস্থায় আলমগীরকে দেখতে পান। খবর পেয়ে সাড়ে ১২টার দিকে থানার সেকেন্ড অফিসার স্বপন চন্দ্র সরকার একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে রিক্সা চালক আলমগীরের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে সুরতাল রিপোর্ট তৈরী শেষে ময়না তদন্তের জন্য সিওমেক হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেন।  আলমগীরের বাবা দরিদ্র রিক্সা চালক আবুল হোসেন জানান, তার ছেলের সাথে কারো শত্রুতা নেই। সে কেন আত্মহত্যা করেছে এ ব্যাপারে তিনি সুনির্দিষ্ট কোন তথ্য দিতে পারেন নি।  লাশ উদ্ধারকারী সেকেন্ড অফিসার এস.আই স্বপন চন্দ্র সরকার জানিয়েছেন, প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে আলমগীর আত্মহত্যা করেছে। ময়না তদন্তের রিপোর্টের পর প্রকৃত কারণ জানা যাবে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।
কানাইঘাট প্রতিনিধি :: কানাইঘাটে কবরস্থানের পাশ থেকে রিক্সা চালক আলমগীরের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার উপজেলার ঝিঙ্গাবাড়ী ইউনিয়নের দর্জিমাটি গ্রামের কবরস্থানের পাশের একটি গাছ থেকে আলমগীরের লাশ উদ্ধার করে কানাইঘাট থানা পুলিশ। নিহত আলমগীর উপজেলার ঝিঙ্গাবাড়ী ইউনিয়নের তিনচটি নয়া গ্রামের আবুল হুসেনের ছেলে। জানা যায়, গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে রাতের খাবার খেয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান আলমগীর । শুক্রবার সকালে আলমগীরকে ঘরে না পেয়ে খোঁজাখুজি শুরু করেন পরিবারের সদস্যরা । একপর্যায়ে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মা কুলসুমা বেগম তাদের পাশ্ববর্তী নিজ দর্জিমাটি গ্রামের কবরস্থানের পূর্বপাশে একটি গাছের সাথে গলায় রশি লাগানো ঝুলন্ত অবস্থায় আলমগীরকে দেখতে পান। খবর পেয়ে সাড়ে ১২টার দিকে থানার সেকেন্ড অফিসার স্বপন চন্দ্র সরকার একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে রিক্সা চালক আলমগীরের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে সুরতাল রিপোর্ট তৈরী শেষে ময়না তদন্তের জন্য সিওমেক হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেন। আলমগীরের বাবা দরিদ্র রিক্সা চালক আবুল হোসেন জানান, তার ছেলের সাথে কারো শত্রুতা নেই। সে কেন আত্মহত্যা করেছে এ ব্যাপারে তিনি সুনির্দিষ্ট কোন তথ্য দিতে পারেন নি। লাশ উদ্ধারকারী সেকেন্ড অফিসার এস.আই স্বপন চন্দ্র সরকার জানিয়েছেন, প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে আলমগীর আত্মহত্যা করেছে। ময়না তদন্তের রিপোর্টের পর প্রকৃত কারণ জানা যাবে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।
WP2FB Auto Publish Powered By : XYZScripts.com