রবিবার, ২৫ আগ ২০১৯ ০৪:০৮ ঘণ্টা

আমার সন্তানের কী দোষ ছিল? ইসরাইলের কাছে জবাব চান ফিলিস্তিনি বাবা

Share Button

আমার সন্তানের কী দোষ ছিল? ইসরাইলের কাছে জবাব চান ফিলিস্তিনি বাবা

ডেস্ক রিপোর্ট :
এক ফিলিস্তিনি বাবা ইহুদিদের সন্ত্রাসবাদী রাষ্ট্র ইসরাইলের কাছে প্রশ্ন রেখে বলেছেন, তাঁর ছোট্ট ছেলেটি কী দোষ করেছিল? তিনি এর জবাব চান।

৯ বছরের ফিলিস্তিনি শিশু আবদেল রহমান এক মাসের বেশি সময় ধরে সে হাসপাতালে। এখনো কথা বলছে না। বিছানার পাশে উদ্বিগ্ন মুখে বাবা বসে আছেন। ছেলের দিকে তাকালে তাঁর বুকের ভেতর হু হু করে ওঠে।

ইসরাইলি সেনাদের গুলিতে তাঁর ছেলে আজ সংকটাপন্ন অবস্থায়। ছেলে বেঁচে আছে, তবে পুরোপুরি সুস্থ হবে কি না, তা নিয়ে চিকিৎসকেরা নিশ্চিত কিছু জানাননি। অনিশ্চয়তার ছাপ তাঁর চেহারায়।

শুক্রবার বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে উঠে এসেছে ফিলিস্তিনি এই শিশুর কথা।

আবদেল রহমান এখন ইসরাইলের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

গত ১২ জুলাই পশ্চিম তীরের উত্তরাঞ্চলের কুফর কাদ্দাম গ্রামে ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারী এবং ইসরাইলি বাহিনীর মধ্যে সংঘর্ষের সময় শিশুটি গুলিবিদ্ধ হয়। ইসরাইলি সেনার গুলি লাগে আবদেলের মাথায়।

অভিযোগ উঠেছে, শিশুটিকে লক্ষ্য করেই গুলি করা হয়েছে। দুজন প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছেন, সংঘর্ষের সময় শিশুটি ঘটনাস্থলের কাছাকাছি ছিল না। আবদেলের পরিবার এ ঘটনার শুরু থেকেই পূর্ণ তদন্তের দাবি জানিয়ে আসছে। পরিবারটির এ দাবির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেছেন জাতিসংঘের দূত নিকোলায় ম্লাদেনভ।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক ইসরাইলি সেনা কর্মকর্তা এএফপিকে জানিয়েছেন, এই ঘটনার তদন্ত চলছে। তবে তাঁর দাবি, শিশুটিকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়া হয়নি। ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে সংঘর্ষের সময় বরাবরের মতো সেদিনও রাবার বুলেট ছুড়েছে সেনারা। প্রাণঘাতী কোনো গুলি ছোড়া হয়নি। শিশুটি রাবার বুলেটে আহত হয়ে থাকতে পারে।

এদিকে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের দাবি, ইসরায়েলি সেনারা প্রাণঘাতী গুলি ছুড়েছিল। এই গুলিতেই আহত হয়েছে শিশু আবদেল।

আবদেলের পরিবারের আশঙ্কা, তার মস্তিষ্ক হয়তো স্থায়ীভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আবদেলের বাবা ইয়াসির ইস্তেওয়ি জানালেন, খুব অল্প সময়ের জন্য জেগে ওঠে আবদেল। এরপরই গভীর ঘুমে তলিয়ে যায়। আবদেলকে গুলি করা নিয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়ে তিনি বলেন, ‘একজনের বাড়ির দরজায় দাঁড়িয়ে আপনি গুলি করে দেবেন?’

এই সংবাদটি 1,028 বার পড়া হয়েছে

WP2FB Auto Publish Powered By : XYZScripts.com