মহামারী উত্তরণে একটি আশার বাণী

প্রকাশিত: ৬:০০ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ২৩, ২০২০

মহামারী উত্তরণে একটি আশার বাণী

তাইসির মাহমুদঃ

একজন বিজ্ঞ ইসলামিক স্কলারের সাথে আজ কথা বলছিলাম। প্রথমেই তাঁর কাছে আমার জানতে চাওয়া: “বর্তমান অবস্থা থেকে উত্তরণের কোনো উপায় আছে?” বললেন, একটি হাদীস পেয়েছি। তবে এখনই এ ব্যাপারে কিছু বলা ঠিক হবে না। মে মাসের অপেক্ষায় আছি। বললাম, হাদীসটি তাহলে একটু শুনি। তিনি বললেন, “রাসুল (সাঃ) বলেছেন, “যখন তারকা উঠবে তখন বিশ্বের সব এলাকা থেকে মহামারী উঠে যাবে”।

বললাম- কোন তারকা, কখন উঠবে একটু ব্যাখ্যা করা যায়? তিনি বললেন, আরবে এই সময়টাতে নানা ধরনের রোগ ব্যাধির প্রাদুর্ভাব দেখা দিতো। মানুষ, পশু-পাখি অসুস্থ হয়ে পড়তো। খাজুর গাছগুলো শুকিয়ে যেতো। কাঁচাপাকা খাজুর পোঁকা ধারা আক্রান্ত হতো। তখন রাসুল (সাঃ) বলতেন, আরো ক’দিনের মধ্যে আকাশে সাতটি তারকা উঠবে। তারকারা উঠলে বিশ্ব থেকে রোগব্যধি উঠে যাবে। এই তারকা গুচ্ছের নাম হচ্ছে “প্লেইডস” (Pleiades) । এদেরকে সেভেন সিষ্টারও বলা হয়ে থাকে। আরবীতে মে মাসকে “আইয়ার” বলা হয়ে থাকে। এই “আইয়ার” বা মে মাসের ১২ তারিখের পরে অর্থাৎ ১৩ তারিখের দিকে সাতটি তারকা আকাশে ওঠে। তখন মহামারী দুর হয়ে যায়।

হাদীসটি শুনে বেশ প্রশান্তি পলাম। এরপর উইকিপিডিয়া ঘেঁটে প্লেইডস বা সেভেন সিস্টার সম্পর্কে অনেক তথ্যও পেলাম। আমার আশা আরো দৃঢ় হলো। আমাদের তো আর করার কিছু নেই। আকাশের দিকেই আমরা চেয়ে আছি। দেখা যাক, মে মাসের ১২ তারিখের পর কী হয়? আশায় আছি। আশায় থাকুন। মানুষ রাতে যখন ঘুমুতে যায় তখন পরদিন জেগে ওঠার আশা নিয়েই ঘুমায়। আমরাও আশাবাদী থাকতে চাই। রাজাধিরাজ বিশ্বঅধিপতির ওপর ভরসা রাখতে চাই। তিনি আমাদেরকে খুব শীঘ্রই এই কঠিন মহামারি থেকে মুক্তি দেবেন ইনশাআল্লাহ।।

এই সংবাদটি 60 বার পঠিত হয়েছে

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com