মঙ্গলবার, ৩০ অক্টো ২০১৮ ০৮:১০ ঘণ্টা

রোববার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রধানমন্ত্রীর সংবর্ধনার ব্যাপক প্রস্তুতি

Share Button

রোববার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রধানমন্ত্রীর সংবর্ধনার ব্যাপক প্রস্তুতি

সিলেট রিপোর্ট: কওমী সনদের স্বীকৃতি আইন পাস করায় আগামী ৪ নভেম্বর রোববার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সংবর্ধনা/শুকরানা মাহফিল করতে যাচ্ছে কওমী মাদরাসা সমূহের সর্বোচ্চ প্রতিষ্ঠান আল আল-হাইআতুল উলয়া লিল-জামি‘আতিল কওমিয়া। সংর্বধনা সফলকরতে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে দাওরায়ে পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের আসার কথা রয়েছে।
অনুষ্ঠানে ইসলামীক ফাউন্ডেশনের আওতাধীন ইমাম ও গণশিক্ষার সাথে সম্পৃক্ত আলেমদের ও উপস্থিত করার ব্যবস্থা নিয়া হয়েছে বলে জানাগেছে। এছাড়া মাহফিলে মুহতামিম ,ওলামায়েকেরাম মাদরাসা সমূহের শিক্ষক ও উচ্চ শ্রেণীর ছাত্রদের উপস্থিতির দায়িত্ব প্রদান করা হয় বেফাকসহ ৬ কওমী শিক্ষাবোর্ডের উপর।
ঢাকার পীরজঙ্গী মাজার মাদরাসায় সংবর্ধনা/শুকরানা মাহফিল প্রস্তুতি কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে উপস্থিত ছিলেন ঢাকার মাদরাসা সমুহের পরিচালকগণ।সভায় সভাপতিত্ব করেন আল-হাইআতুল উলয়ার কো- চেয়ারম্যান অল্লামা আশরাফ আলী। উপস্থিত ছিলেন মুফতী মুহাম্মাদ ওয়াক্কাস, মাওলানা মুহাম্মাদ আব্দুল কুদ্দুছ, মাওলানা মুহাম্মাদ নূরুল ইসলাম, মুফতী রুহুল আমীন, মাওলানা মুহাম্মাদ আব্দুল বছীর, মাওলানা মুহাম্মাদ আরশাদ রহমানী, মাওলানা মুফতী মুহাম্মাদ আলী, মাওলানা সাজিদুর রহমান, মাওলানা মাহফুজুল হক, মুফতী ফয়জুল্লাহ, মামাওলানা মুফতী নূরুল আমীন, মাওলানা বাহাউদ্দিন যাকারিয়া, মাওলানা মুহাম্মাদ সফিউল্লা প্রমুখ।
সভায় সংবর্ধনা/শুকরানা মাহফিলে তিনটি দাবি তোলার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। দাবিগুলো হচ্ছে-
কাদিয়ানীদের সরকারি ভাবে অমুসলিম ঘোষণা, ইসলাম বিরোধী শক্তিকে প্রতিহত করা এবং আলেম-ওলামা ও ছাত্র-শিক্ষকদের বিরুদ্ধে হয়রানি মূলক মামলা প্রত্যাহার করা।

এই সংবাদটি 1,364 বার পড়া হয়েছে

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com