রবিবার, ১৮ আগ ২০১৯ ০৬:০৮ ঘণ্টা

কাশ্মীর ইস্যু : পাকিস্তানের কূটনৈতিক জয়, সুর নরম ভারতের

Share Button

কাশ্মীর ইস্যু : পাকিস্তানের কূটনৈতিক জয়, সুর নরম ভারতের

ডেস্ক রিপোর্ট :
বিশ্লেষকরা বলছেন, কাশ্মীর বিষয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বড় কূটনৈতিক জয় পেয়েছে পাকিস্তান।

বিভিন্ন কারণে দেশটি নিজেও এমনটা দাবি করেছে।

ইতিমধ্যে কাশ্মীরের চলমান সংকট নিয়ে জাতিসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদ (ইউএনএসসি) রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেছে।

মূলত সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করে ভারত কাশ্মীরের যে বিশেষ মর্যাদা বাতিল করেছে এ নিয়ে পাকিস্তানের আহ্বানে সাড়া দিয়েই নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠক অনুষ্ঠিত হল।

বৈঠকের আগে-পরে প্রকাশ্যেই পাকিস্তানকে পূর্ণ সমর্থন দিয়েছে চীন।

এদিকে, ভারতের মিত্র হিসেবে পরিচিত রাশিয়াও কাশ্মীর পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে জাতিঙ্ঘের নীতি মেনে চলার জন্য ভারতকে আহ্বান জানিয়েছে।

এছাড়া আন্তর্জাতিক ইসলামী সহযোগী সংস্থা (ওআইসি) ভারতকে দ্রুত কাশ্মীর পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার তাগিদ দিয়েছে।

কাশ্মীরে নিপীড়নের বিধয়ে উদ্বেগ জানিয়ে ভারতের নেয়া পদক্ষেপের সমালচনা করেছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংসাথ অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

অন্যদিকে সৌদি আরব, কাতার, তুরস্ক, মালয়শিয়াসহ মুসলিম বিশ্বের প্রভাবশালী দেশগুলো পাকিস্তানের পাশে থাকার ঘোষণা দিয়েছে।

এমন পরিস্থিতে চাপের মুখে রয়েছে ভারত।

কাশ্মীর ইস্যুতে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের রুদ্ধদ্বার বৈঠকের মাত্র কয়েক ঘণ্টা পরই অধিকৃত কাশ্মীরে টেলিফোন সংযোগ পুনরায় চালু করার ঘোষণা দিয়েছে ভারত।

শনিবার ভারতীয় এক সংবাদ মাধ্যম জানায়, ধীরে ধীরে ছন্দে ফিরছে জম্মু-কাশ্মীর। রাজ্যের ওপর থেকে কারফিউ শিথিল করার ফলে সেখানকার বেশ কিছু স্কুল-কলেজ খোলা হয়েছে। উপত্যকার কিছু জায়গায় মোবাইল আর ইন্টারনেট পরিষেবাও শুরু হয়েছে।

জানা যায়, মোট ১০০টি টেলিফোন এক্সচেঞ্জের মধ্যে ১৭টি চালু করা হয়েছে। চালু হয়েছে প্রায় ৫০ হাজার ল্যান্ডলাইন। শ্রীনগরের কিছু কিছু এলাকাতেও চালু হয়েছে টেলিফোনের ল্যান্ডলাইন পরিষেবা।

সপ্তাহ দু’য়েক আগে ৩৭০ ধারা রদের প্রাক-মুহূর্তে নিরাপত্তার কারণে গোটা জম্মু-কাশ্মীরে টেলিফোন ও সব রকমের ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়।

কিন্তু শনিবার থেকে বাদগাম, সোনমার্গ ও মধ্য কাশ্মীরের মনিগাম ও উত্তর কাশ্মীরের গুরেজ, তাঙ্গমার্গ, উরি কেরন কারনা, তাঙ্গধারে ল্যান্ডলাইন পরিষেবা চালু হয়েছে। আর শ্রীনগরে ওই পরিষেবা চালু হয়েছে বিমানবন্দর লাগোয়া এলাকা, সিভিল লাইন্স ও ক্যান্টনমেন্ট এলাকায়।

আর মোবাইলে ইন্টারনেট পরিষেবা চালু করা হয়েছে জম্মুর পাঁচটি জেলায়। তাদের মধ্যে রয়েছে, জম্মু, রিয়াসি, সাম্বা, কাঠুয়া ও উধমপুর।

এই সংবাদটি 1,031 বার পড়া হয়েছে

WP2FB Auto Publish Powered By : XYZScripts.com