হাওর ডুবির জন্য সরকারী দলের নেতাকর্মী প্রশাসন পাউবো পিএসসির সদস্যরা দায়ী

প্রকাশিত: ৯:৪০ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৯, ২০২২

হাওর ডুবির জন্য সরকারী দলের নেতাকর্মী প্রশাসন পাউবো পিএসসির সদস্যরা দায়ী

 

তৌহিদ চৌধুরী প্রদীপ, জামালগঞ্জ থেকে:
জামালগঞ্জ ধর্মপাশার মধ্যনগর ও তাহিরপুরের হাওরের বিভিন্ন ফসল রক্ষা বাঁধ পরিদর্শন করেছেন
সুনামগঞ্জ -১ নির্বাচনী এলাকার সাবেক তিন বারের সংসদ সদস্য জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা নজির হোসেন।
শনি বার তিনি তার নির্বাচনী এলাকার বাঁধ পরিদর্শণ করেন এবং কৃষকদের সাথে মত বিনিময় করেন।
নজির হোসেন ধর্মপাশা উপজেলার পানিতে ডুবে যাওয়া চন্দ্রসোনারতাল হাওর পরিদর্শণ করেন। এ সময় তিনি হাওর ডুবির জন্য সরকারী দলের নেতাকর্মী, প্রশাসন, পাউবো ও পিআইসির সদস্যদের দায়ী করেন। তিনি বলেন, সরকারের জনগণের কাছে জবাবদিহীতা না থাকার কারণে কোন বাঁধেই সঠিক সময়ে কাজ শুরু ও শেষ হয়নি। হাওর ডুবির দায় সরকারকেই নিতে হবে। পরে তিনি ধর্মপাশা উপজেলার ডুবাইল ও জামালগঞ্জ উপজেলার সর্ববৃহৎ বোরো ফসলী ভান্ডার পাকনা হাওরের ফেনারবাঁক ইউনিয়নের কাইল্ল্যানী, কাউয়ারবাদা, বউগলা খালি বেরী বাঁধ সহ বেশ কয়েকটি ঝুকিপূর্ণ বাঁধ পরিদর্শন করেন।
পাকনা হাওরে বাঁধে বাঁধে সংশ্লিষ্টদের অনিয়ম আর দায়হীন কর্মকাণ্ড দেখে তিনি ক্ষুব্ধ প্রতিত্রিয়া ব্যক্ত করে বলেন, কোথাও আধাফুট, কোথাও এক থেকে দেড়ফুট, কোথাও পুরাতন বাঁধের উপরিভাগ কেবলি কোনরকম করেই প্রত্যেকটি বাঁধের উপরের অংশ ঢেকে দেওয়া হয়েছে। বাঁধে মাটি ফেলার পর নিয়ম অনুয়ায়ী দূরমুজ করা হয়নি। গুরুত্বপূর্ণ বাঁধগুলোতে (ক্লোজারগুলোতে) আশংকাজনক পরিস্থিতি লক্ষ্য করেন তিনি। বাঁধের উপরে ও দু’পাশে ঘাস লাগানো এবং এ সবের পরিচর্যা করার বাধ্য বাধকতা থাকলেও প্রকল্পের স্থানে স্থানে পিআইসির কাউকে দেখেননি। কিছু কিছু বাঁধে দায়সারা ভাবে ঘাস লাগানোয় আশেপাশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে আছে এমন অভিযোগ স্থানীয় কৃষকদের।
এসময় অন্যানের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, ধর্মপাশা উপজেলা বিএনপি সাবেক সভাপতি আব্দুল মোতালিব, বিএনপি নেতা মোঃ আব্দুল হক বিএনপি ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতা কর্মী উপস্থিত ছিলেন।

 

এই সংবাদটি 63 বার পঠিত হয়েছে

[latest_post][single_page_category_post]

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com