মঙ্গলবার, ২৬ ডিসে ২০১৭ ০৪:১২ ঘণ্টা

মুফতি শাহ আহরারুজ্জামানের স্মরণ সভায় বিশিষ্ট আলেমগন

Share Button

মুফতি শাহ আহরারুজ্জামানের স্মরণ সভায় বিশিষ্ট আলেমগন

সিলেট রিপোর্ট: মুক্তিযোদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও স্বাধীন বাংলায় প্রথম জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের মহাসচিব হবিগঞ্জ নিবাসী  মুফতি শাহ আহরারুজ্জামান (র) স্মরণে গতকাল (২৫ ডিসেম্বর) সোমবার বিকেলে হবিগঞ্জ জেলা সদরের মুসলিম কোয়াটার এলাকাস্থ মদনি মঞ্জিল তার বাস ভবনে এক আলোচনা  সভাও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ হবিগঞ্জ জেলা সভাপতি আল্লামা তাফাজ্জুল হক হবিগঞ্জী। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় জমিয়তের মহাসচিব আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী। মরহুমের ছেলে শাহ মাসুদ মক্কী কুরেশী ও মাওলানা আখতারুজ্জামানের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন, জমিয়তের প্রবীণ মুরুব্বী শায়খুল হাদীস আল্লামা আব্দুস শহীদ গলমুকাপনী, জমিয়তের কেন্দ্রীয় সহসভাপতি মাওলানা আব্দুর রব ইউসুফি, মাওলানা জুনাইদ আল হাবিব, যুগ্মমহাসচিব মাওলানা তাফাজ্জুল হক আজিজ, প্রচার সম্পাদক মাওলানা জয়নুল আবেদীন,যুব জমিয়তের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মাওলানা গোলাম মাওলা,সিলেট মহানগর জমিয়তের সভাপতি মাওলানা খলিলুর রহমান,সেক্রেটারী মাওলানা ফখরুজ্জামান, যুব জমিয়তের কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক মাওরানা রুহুল আমীন নগরী,মুফতি সিদ্দিকুর রহমান, মাওলানা আব্দুল জলীল ইউসুফি, মাওলানা তাফহিমুল হক কাসেমী, মাওলানা মামনুল হক , মাওলানা আমিরুল ইসলাম, নিজামুদ্দীন চৌধুরী, মাওলানা শাহ খলিল, বশিষ্ট মুরুব্বী ফখরুজ্জামান, নিজাম উদ্দীন চৌধুরী সহ মরহুমের পরিবারের সদস্য গন উপস্থিত ছিলেন। 
সভায় বক্তারা  বলেন, মুফতি শাহ আহরারুজ্জামান ১৯৭১ সালে প্রবাসে অবস্থান কালীন সময়ে স্বাধীন বাংলার পক্ষে জনমত গঠনের কাজ করেছেন। তিনি  পাক বাহিনীর অত্যাচার নির্যাতনের বিরুদ্ধে সোচ্চার ছিলেন। স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে দেশে এসে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সাথে কথা বলে মসজিদ মাদরাসা ও ধর্মীয় রাজনীতি বিষয়ে মতবিনিময় করেন। এরই প্রেক্ষিতে ১৯৭৪ সালের জানুয়ারী মাসে বাংলাদেশে জমিয়ত পূর্ণগঠিত হয়। এসময় আল্লামা তাজাম্মুল আলী লাউরী হুজুরকে সভাপতি ও তাকে মহাসচিব করে জমিয়তের কমিটি গঠন করা হয়। মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী সময়ে আরব বিশ্বের সাথে বাংলাদেশের সম্পর্ক সুদৃঢ় করতে মাওলানা মুহিউদ্দীন খান ও মুফতি শাহ আহরারুজ্জামানের অবদান অনস্বীকার্য।  তারা বঙ্গবন্ধুর পক্ষ থেকে সৌদি আরব ও সফর করেন।

এই সংবাদটি 1,018 বার পড়া হয়েছে