শনিবার, ১৩ এপ্রি ২০১৯ ০৬:০৪ ঘণ্টা

আগে বিচার পরে পরীক্ষা, কওমি শিক্ষার্থীদের ঘোষণা

Share Button

আগে বিচার পরে পরীক্ষা, কওমি শিক্ষার্থীদের ঘোষণা

সিলেট রিপোর্ট: প্রশ্নফাঁসের অভিযোগে আল হাইয়াতুল উলইয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশ এর অধীনে চলমান দাওরায়ে হাদীসের (তাকমিল জামাত) পরীক্ষা বাতিল করেছে কর্তৃপক্ষ।  এদিকে প্রশ্নফাঁসের অভিযোগ ওঠায় বাংলাদেশ কওমি মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড-এর (বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশ) চলমান ৪২তম কেন্দ্রীয় পরীক্ষার মেশকাত জামাতের (ফজিলত) পরীক্ষা ও স্থগিত করেছে কর্তৃপক্ষ।
আজ শনিবার (১৩ এপ্রিল) রাজধানীর সকালে আল হাইয়াতুল উলইয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশের কো চেয়ারম্যান আল্লামা আশরাফ আলীর সভাপতিত্বে ঢাকার মতিঝিলে সংস্থাটির কার্যালয়ে এক জরুরি বৈঠকে দাওরায়ে হাদীসের পরীক্ষা বাতিলের সিদ্ধান্ত হয় । আগামী ২৩ এপ্রিল থেকে ৩মে পর্যন্ত দাওরায়ে হাদীসের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। তবে দেশের প্রায় ২৭ হাজার শির্ক্ষাথী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলছেন আগে প্রশ্নফাঁসে জড়িতদের বিচার হোক, পরে পরীক্ষা। তিন দিনের মধ্যে অভিযুক্তদের দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন দাওরায়ে হাদীস পরীক্ষারা। শহিদুল ইসলাম হৃদয় নামে এক পরীক্ষার্থী সিলেট রিপোর্ট জানান আমরা হুজুরদের প্রতি সম্মান রেখেই বলছি, আগে দোষিদের বিচার হোক ,পরে পরীক্ষা । যারা কওমি মাদরাসার সোনালী ঐতিহ্য বিনষ্ট করেছে তাদের চূড়ান্ত বিচার না হলে ছাত্ররা প্রয়োজনে পরীক্ষা বর্জন করে আন্দোলনের ডাক দিবে। ‘

৮ এপ্রিল থেকে সারাদেশে বাংলাদেশ কওমি মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড (বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশ) এর ৪২তম কেন্দ্রীয় পরীক্ষা শুরু হয়। এবার সারাদেশে ২৯টি জোনের মাধ্যমে এক হাজার ৪৮২টি কেন্দ্রে, এক লাখ ৫২ হাজার ৩৯৭ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে।

এদিকে দেশের ৬ টি শিক্ষাবোর্ডের অধীনে মোট ২৬হাজার ৭শত ২১জন শিক্ষার্থী এ বছর পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে। তাদের মধ্যে ছাত্রী সংখ্যা প্রায় ৭ হাজার।

এই সংবাদটি 1,080 বার পড়া হয়েছে

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com