রবিবার, ২৬ জানু ২০২০ ০২:০১ ঘণ্টা

শ্রীমঙ্গলে রেলের জমি ফের দখল!

Share Button

শ্রীমঙ্গলে রেলের জমি ফের দখল!

কে এস এম আরিফুল ইসলাম:

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের ভানুগাছ সড়কের পাশ থেকে অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করে নিজেদের জায়গা উদ্ধার করেছিল রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। উচ্ছেদ অভিযানের সময় পাকা ভবন থেকে শুরু করে সব ধরনের স্থাপনা উচ্ছেদ করে তারা। যার যার মালামাল দ্রুত সরানোর নির্দেশও দেওয়া হয়। কিন্তু কে শোনে কার কথা। উচ্ছেদ অভিযান শেষ হওয়ার দুই সপ্তাহ পর থেকেই আবারও শুরু হয়েছে দখল। উচ্ছেদ অভিযানের দুই মাস পেরোনোর আগেই এখন আবারও অবৈধ দখলদারদের কবজায় রেলের প্রায় ২ দশমিক ৮৭ একর জায়গা।

গত বছরের ২৭ নভেম্বর রেলওয়ের এই জায়গাটি অবৈধ দখলদারদের হাত থেকে দখলমুক্ত করা হয়। তিন শতাধিক দোকানপাটের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ কার্যক্রমে নেতৃত্ব দেন বাংলাদেশ রেলওয়ের বিভাগীয় ভূ–সম্পত্তি কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম। অভিযানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নজরুল ইসলাম ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. মাহমুদুর রহমান।

গতকাল শুক্রবার সরেজমিনে দেখা গেছে, নতুনভাবে আবারও রেলওয়ের জায়গা দখল করার প্রতিযোগিতা চলছে। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সাইনবোর্ড লাগিয়ে বাঁশ, কাঠ, টিন ব্যবহার করে দোকানঘর তৈরি করা হচ্ছে। ফার্নিচারের দোকানগুলোতে সাজিয়ে রাখা হয়েছে মালামাল। খালি জায়গাগুলো ভরে উঠছে নতুন সব দোকানে।

নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক একজন দখলদার প্রথম আলোকে বলেন, ‘উচ্ছেদ করা হচ্ছে লোকদেখানো। একবার উচ্ছেদ করেছে আর কবে আসবে ঠিক নেই। সবাই আগের জায়গায় আবার ঘর তুলছে। কেউ বাধা দিচ্ছে না। আমরাও তাই আমাদের পুরোনো দোকানের জায়গায় নতুন করে ঘর তুলছি। রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ উচ্ছেদ করতে চাইলে সে সময় উঠে যাব। কিন্তু এখন যদি দখল করে না রাখি পরে এই জায়গা আরেকজন দখল করে নেবে।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম বলেন, রেলওয়ের জায়গা দখলমুক্ত করার কাজটা রেল মন্ত্রণালয়ের। তারা যখন উচ্ছেদ অভিযান করে তখন তিনি ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এখন আবারও এই জায়গা দখল হচ্ছে। বিষয়টি রেল মন্ত্রণালয়ের নজরে আনা হবে। তারা আবারও উচ্ছেদ অভিযান করতে চাইলে সহযোগিতা করা হবে।

রেলওয়ে বিভাগীয় ভূ-সম্পত্তি কর্মকর্তা মো. নজরুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমরা জায়গাটি অবৈধ দখলদারদের হাত থেকে উদ্ধার করে এসেছিলাম। এখন কাউকে এই জায়গা লিজ (ইজারা) দেওয়া হয়নি। শুনেছি আবারও দখলের চেষ্টা চলছে। আমি আমিনের (সার্ভেয়ার) কাছে ব্যাখা চেয়েছি কীভাবে এই জায়গা আবার দখল হচ্ছে। তাকে বলা হয়েছে অবিলম্বে দখলদারদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করার জন্য।’

এই সংবাদটি 1,012 বার পড়া হয়েছে

WP2FB Auto Publish Powered By : XYZScripts.com