মঙ্গলবার, ০৯ অক্টো ২০১৮ ০২:১০ ঘণ্টা

সিলেট-৬ আসনে বিএনপির নতুন চমক মাওলানা রশীদ

Share Button

সিলেট-৬ আসনে বিএনপির নতুন চমক মাওলানা রশীদ

অলিদ তালুকদার: আসন্ন নির্বাচনে সিলেট-৬ (গোলাপগঞ্জ ও বিয়ানীবাজার) আসনে এবার বিএনপির নতুন চমক সিলেট জেলা বিএনপির উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট মাওলানা রশীদ আহমদ। তাকে মনোনয়ন দেয়ার জন্য ঐক্যবদ্ধ হয়েছেন এ আসনের স্থানীয় বিএনপির সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা। অবশ্য এ আসনে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী অনেক নেতা আলোচনায় রয়েছেন। এর মধ্যে সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি আবুল কাহের শামীম ও জেলা বিএনপির উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট মাওলানা রশীদ আহমদ, জাসাসের সাধারণ সম্পাদক অভিনেতা হেলাল খান,এমরান আহমদ চৌধুরী। অন্যদিকে বর্তমান সরকারের শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের নির্বাচনি এলাকা এই আসনটি। বিগত সময়ে এই আসনে বিএনপির শরিক জামায়াত প্রার্থীকে মনোনয়ন দেয়া হয়। কিন্তু এখন বিএনপির নেতাকর্মীরা দলীয় প্রার্থী মনোনয়ন দেওয়ার দাবি জানিয়েছে। সম্প্রতি দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের কাছে সিলেট-৬ আসনের বিএনপির নেতাকর্মীরা সৌজন্য সাক্ষাতে জোট শরিক নয়, বিএনপির প্রার্থী দিতে বিশেষ অনুরোধ করেছেন। সেক্ষেত্রে তারা বিশেষ করে মাওলানা রশীদ আহমদ তৃণমূলের পছন্দের প্রার্থী বলেও মহাসচিবকে জানিয়েছেন।

অতীতের অভিজ্ঞতাকে পুঁজি করে এমন সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন দলের জেলা ও স্থানীয় নেতারা। দীর্ঘ ২২ বছর এ আসনে বিএনপির প্রভাব থাকলেও জোটের শরিক জামায়াতকে ছেড়ে দেয়ার কারণে এলাকার দলীয় নেতাকর্মীদের অবস্থান হারানোর উপক্রম হচ্ছে। ফলে নেতাকর্মীদের অবস্থান ধরে রাখতে স্থানীয় বিএনপির নেতারা এ সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে অ্যাডভোকেট মাওলানা রশীদ আহমদ বলেন, দল থেকে মনোনয়ন পেলে এমপি নির্বাচিত হয়ে এলাকাবাসীর কল্যাণে উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিচালনা করে আগামীতে নজীর স্থাপন করতে চান। তিনি বলেন, মনোনয়নের প্রত্যাশা তো আছেই। তবে এখন মনোনয়ন নিয়ে ভাবছি না। আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে জেল থেকে মুক্তির আন্দোলনই হচ্ছে আমার কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আর দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে আমি এলাকাতে আন্দোলনের জন্য প্রস্তুতি নিয়েছি।

স্থানীয় নেতাকর্মীরা জানান, তৃণমূল নেতাকর্মীদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরেই আছে নানা হতাশা। ধানের শীষ প্রতীক নির্বাচনের মাঠে না থাকায় স্থানীয় নেতাকর্মীরা ক্ষুব্ধ। তারা আগামী নির্বাচনে শরিক নয়, বিএনপির প্রার্থী চান। এবার তারা কিছুতেই জামায়াতকে ওই আসনে ছাড় দিতে প্রস্তুত নন। নেতাকর্মীদের প্রত্যাশা বিএনপির হাই কমান্ড স্থানীয় নেতাকর্মীদের মনোভাব বোঝতে পারবেন।

এই সংবাদটি 1,325 বার পড়া হয়েছে

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com