শেখ বদরুল আলম হামিদী মানবতার সেবায় ছুটে চলা এক নাবিক

প্রকাশিত: ৪:২২ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৫, ২০২০

শেখ বদরুল আলম হামিদী মানবতার সেবায় ছুটে চলা এক নাবিক

মুহাম্মাদ জাবেদ হায়দরগঞ্জীঃ

মাওলানা শেখ বদরুল আলম হামিদী। বিপন্ন মানবতার সেবায় ছুটে চলা এক অতন্দ্র নাবিক! মাদারিসে কাওমিয়ার সূর্যসন্তান। আওলাদে বরুণীর এক উজ্জ্বল নক্ষত্র। সূযোগ্য পিতার সূযোগ্য উত্তরসুরী। কিছু কদাকার মানুষের গাত্রদাহ আর ভ্রুকুঞ্চিত চেহারা উপেক্ষা করে তিনি আপন গতিতে এগিয়ে চলছেন। দ্বীন ও মানবতার চিরবিদ্বেষের বামদিকে তাকানোর ফুরসত নেই তাঁর! বহুমুখী কর্ম নিয়েই সারাদিন ব্যতিব্যস্ত। লক্ষ্য ও গন্তব্য বহুদূর!
ঐতিহ্যবাহী বরুণা মাদরাসা;সুবিশাল প্রতিষ্ঠান। বরুণা মহিলা মাদরাসা; নারীশিক্ষায় এক নতুন দিগন্ত। আলখলীল কুরআন শিক্ষাবোর্ড বাংলাদেশ; দেশের আনাচে-কানাচে ছড়িয়ে পড়া কুরআনের আলোকিত দীর্ঘ মশাল। আঞ্জুমানে হেফাজতে ইসলামের বিশাল কার্যক্রম। এতগুলো প্রতিষ্ঠানের দায়িত্ব আর বিশাল ব্যয়নির্বাহ তাঁর কাঁধে! তথাপিও থেমে নেই দূর্যোগ-দূর্ভিক্ষে নিপতিত আর্তমানবতার সেবায় তাঁর দিবানিশি ছুটে চলা।
জীবনবাজি রেখে শতাব্দীর চরম দূর্যোগে নিপতিত দক্ষিণ আফ্রিকার বিশাল জনগোষ্ঠির জন্য ত্রাণসামগ্রী নিয়ে আফ্রিকার দূর্গম প্রান্তরে তাঁর অবিরাম ছুটে চলা আমরা প্রত্যক্ষ করেছি। ইথিওপিয়া, উগান্ডা, রুয়ান্ডা, তাঞ্জানিয়া, মালাওয়ে, জিম্বাবুয়ে,মুজাম্বিক থেকে নিয়ে জানজিবার ভয়ঙ্কর দ্বীপপুঞ্জ পর্যন্ত এ সফর ছিল রীতিমত শিহরিয়ে উঠার মত! গ্রীসের এডুমেনিতে সিরিয়ার উদ্বাস্তু শরণার্থী শিবিরে তাঁর সেবা তৎপরতা দেখে আমরা অশ্রুসজল হয়েছি।
আর স্বদেশের দূর্যোগ-দূর্ভিক্ষে সময়ক্ষেপণ না করে ক্ষিপ্রগতিতে ছুটে চলা এ নাবিক টেকনাফের রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবির থেকে নিয়ে সিডর আক্রান্ত হোক আর বন্যাদুর্গত এলাকা হোক, কোথায় নেই!?
করোনা প্রাদুর্ভাবের ভয়ঙ্কর তান্ডবে গোটা পৃথিবী যখন স্তব্ধ হয়ে গেছে। পুরো বিশ্ব যখন ভয়ে কম্পমান! বৃটেনের কঠোর লগডাউনে সবাই যখন রুদ্ধদ্বার গৃহবন্দী; ঠিক তখনই তিনি স্বদেশের হতদরিদ্র মানুষের সঙ্কটাপন্ন অবস্থা চিন্তা করে এই কঠোর লকডাউনের মধ্যেও হতদরিদ্র আর নিম্নবিত্ত মানুষের মুখে হাসি ফুটাতে জীবনবাজি রেখে কাজ করে যাচ্ছেন সহাস্য বদনে। নানা বাধা-বিপত্তির মুখেও ইতোমধ্যে শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার,সিলেট, সুনামগঞ্জ, শায়েস্তাগঞ্জ, বানিয়াচং, হবিগঞ্জসহ হতদরিদ্র ও নিম্নবিত্ত অসংখ্য মানুষের মাঝে তিনি ফ্যামেলি ফুডপ্যাক বিতরণের ব্যবস্থা করেছেন। বরুণা মাদরাসা ও আলখলীলের উদ্যোগে পরিবেশিত এই ত্রাণ বিতরণে খতীবে ইসলাম আল্লামা নুরুল ইসলাম ওলীপুরী, আল্লামা নুরুল ইসলাম খান সুনামগঞ্জী, এডভোকেট মাওলানা শাহীনুর পাশা চৌধুরীর মত বরেণ্য ব্যক্তিরা অংশগ্রহণ করেছেন। তিনি তাঁর দাদা যুগশ্রেষ্ঠ মনীষী, কুতবে দাওরান হযরত শায়খে বরুণী রহ.
ও স্বীয় পিতা ওলীয়ে যামান ফিদায়ে ইসলাম আল্লামা শায়খ খলীলুর রহমান হামিদী [পীর সাহেব বরুণা]’র পদাঙ্ক অনুসরণ করেই এগিয়ে যাচ্ছেন মানযিলে মাকসাদের দিকে! রাব্বে কারীম তাঁর কর্মময় বর্ণাঢ্য জীবনে আরো বরকত দান করুন-আমীন।
লেখক: মুহাদ্দিস বরুণা মাদরাসা।

এই সংবাদটি 38 বার পঠিত হয়েছে

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com