আলোকিত সমাজ কল্যান সংস্থা ৬ষ্ট বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে কিছু কথা

প্রকাশিত: ৯:৫৬ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ২০, ২০২০

আলোকিত সমাজ কল্যান সংস্থা ৬ষ্ট বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে কিছু কথা

🔹সামাজিক সংগঠন সবার মতকে শ্রদ্ধা করা, সদস্য হিসেবে নিজ দায়িত্ব পালন করা, নিজেকে বিকশিত করা, একসঙ্গে কাজ করতে উদ্বুদ্ধ হওয়া সহনশীল হওয়া, ইত্যাদি শেখায়। তাছাড়া সুনির্দিষ্ট কিছু মূল্যবোধের ভিত্তিতে কার্যক্রম পরিচালনা করতেও শিক্ষা দেয় সামাজিক সংগঠন। এখন মানুষ মানুষে যে অসহিষ্ণুতা, অস্থিরতা সামাজিক অবক্ষয় দেখা যায় এগুলো দূর করতে হলে সুস্থ সংস্কৃতির বিকাশ প্রয়োজন। সামাজিক সংগঠনের মাধ্যমে সামাজিক সুস্থতা আনা সম্ভব। নিজেকে একজন চৌকস মানুষ হিসাবে প্রতিষ্ঠিত ও উদার মানুষ হতে হলে লেখাপড়ার পাশাপাশি একজন শিক্ষার্থীকে সামাজিক দায়বদ্ধতায় কাজ করতে হবে। আকাশ আমায় শিক্ষা দিল উদার হতে ভাইরে, কর্মী হওয়ার মন্ত্র আমি বায়ুর কাছে পাইরে। সেজন্য শিক্ষার্থীদের সমাজ সেবামূলক সংগঠন করতে হবে। একটি কথা মনে রাখতে হবে শুধু পরীক্ষায় ভাল ফল করলেই হয়না। সফল মানুষ হতে হলে নানা দিক থেকে চৌকস হতে হয়। ব্যাক্তির সঙ্গে সমাজের বন্ধন যখন দুর্বল হয়ে পড়ে তখন সমাজে নানা ধরনের বিশৃঙ্খলা ও অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি তৈরী হয়। সেই ক্ষেত্রে ব্যক্তির সঙ্গে সমাজের সম্পর্ক মধুর করার পেছনে আদর্শ সংগঠনের ভূমিকা অগ্রগণ্য। মানুষে মানুষে সম্পর্ক যত গভীর ও মধুর হবে সমাজ তত ভালো থাকবে, সুন্দর হবে সামাজিক বিশৃঙ্খলা ও কম থাকবে। এলাকা, পাড়া ও মহল্লার আইন-শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ সামাজিক সমস্যা দূরীকরণ এবং সুশৃঙ্খল সমাজ গঠন করার জন্য সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের উদ্ভব অনেক আগ থেকেই। এখানে কোনো রাজনৈতিক স্বার্থ রাখা উচিত নয়। রাজনীতি যার যার, সামাজিক সংগঠন সবার।

🔹পবিত্র কুরআন মাজিদে এরশাদ হচ্ছে “তোমরা কল্যাণমূলক কাজে প্রতিযোগিতার মাধ্যমে অগ্রসর হও। (সুরা বাকারা ১৪৮)
আমাদের মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সঃ)নবুয়ত পাওয়ার আগেই সমাজ সেবার জন্য তরুণদের নিয়ে হিলফুল ফুজুল নামে সেবা সংঘ গঠন করেছিলেন। নবুয়ত পাওয়ার পর ও তিনি সাহাবীদরে নিয়ে সংঘবদ্ধ ভাবে কাজ করেছেন। ইংরেজীতে একটি কথা আছে A man who builds wall instead of bridge has no right to complain if he is alone অর্থাৎ কেউ যদি সেতুর বদলে প্রাচীর রচনা করে নি:সঙ্গ হলে অভিযোগ করার অধিকারটিও সে হারায়।
চীনা দার্শনিক কনফুশিয়াস বলেছিলেনঃ He who wished to secure the good of others, has already secured his own. অর্থাৎ যে ব্যক্তি অন্যের কল্যাণের ইচ্ছা পোষণ করে সে প্রকৃত প্রক্ষে নিজের কল্যাণই নিশ্চিত করে। সামাজিক সংগঠনে যুক্ত হওয়ার মাধ্যমে মানুষের কল্যাণে কাজ করার প্রেরণা পাওয়া যায়। সামাজিক সংগঠনগুলোতে যুক্ত হওয়ার মাধ্যমে ইতিবাচক গুণাবলী তৈরী হয়। মানুষের মধ্যে নেতৃত্ব-গুণ তৈরী হয়।
বাঙ্গালি জাতির অবিসংবাদিত নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে সাধারণ মানুষের অভূতপূর্ব অংশগ্রহন, সহযোগিতা ও সমর্থন নয় মাসে বাংলাদেশের বিজয় অর্জন ও সংঘবদ্ধতার কারণেই সম্ভব হয়েছে। সামাজিক সংগঠন মানুষকে সবার কাছে পরিচিত করে তুলে। সংগঠনে যুক্ত হওয়ার মাধ্যমে বিভিন্ন তথ্য আদান-প্রদানের মাধ্যমে সবাই লাভবান হয়। যেমন আপনার যদি একটি আপেল থাকে আপনি যদি অন্য একজনকে দেন অন্যজন ও যদি আপনাকে একটি আপেল দেয়, উভয়েরই একটি করে আপেল থাকলো। অন্যদিকে যদি আপনার একটি আইডিয়া থাকে আপনি যদি অন্যজনের সাথে শেয়ার করেন এবং অন্যজন যদি আপনার সাথে আর একটি আইডিয়া শেয়ার করে উভয়েরই দুটি করে আইডিয়া হয়ে গেল। সংগঠন মানুষের কল্পনাশক্তিকেও শাণিত করতে পারে। আইনস্টাইন বলেছেন Imagination is more powerful than knowledge. আমেরিকান ঔপন্যাসিক জ্যানেট প্লেনার বলেছেন genius is immediate but talent takes time প্রতিভা তাৎক্ষণিক, ঐশ্বরিক, কিন্তু মেধাবী হতে সময় লাগে, পরিশ্রম ও লেখাপড়ার মাধ্যমে মেধাকে বিকশিত করা যায়। এক্ষেত্রে সংগঠন অনেক উপকারে আসে।
লক্ষ্য অর্জনের জন্য নিজের মেধাকে কাজে লাগাতে হয়। পরিকল্পিত পরিশ্রম করতে হয়। যুগে যুগে যারাই বড় হয়েছেন, মহান হয়েছেন তাদের প্রত্যেকের জীবনেই একটা লক্ষ্য ছিল। মনছবি ছিল। বরেণ্য শিক্ষাবিদ অধ্যাপক আব্দুল্লাহ আবু সায়ীদ বলেছেন কোন ভাবেই এক সেকেন্ডের জন্যও সময়কে নষ্ট করা পাপ। নিজেকে দুঃখী মনে করাও অপরাধ। সামাজিক সংগঠন করলে মনের দেওলিয়াত্ব ঘোচে, দুর্দশার চক্র থেকে বেরিয়ে আসা যায়। জীবন ও জগত সম্পর্কে জানা শোনা বাড়ে। সংগঠন একদিকে জীবনের পরিধি বাড়ায় অন্যদিকে মানুষকে স্বপ্ন দেখতে শেখায়। মানুষের ইতিবাচকতাকে বাড়িয়ে আশাবাদী করে। মানুষকে প্রচন্ড আত্ববিশ্বাসী করে কাজের প্রেরণা ও সাহস যোগায়।
🔹সেই সাহস থেকেই “শিক্ষা” “ঐক্য” “সেবা” স্লোগান দিয়ে ১৯শে ডিসেম্বর ২০১৪ সালে আমরা কয়েকজন উদ্যমি তরুণ মানুষের কল্যানের জন্য প্রতিষ্ঠা করেছিলাম “আলোকিত সমাজ কল্যাণ সংস্থা”।
আজ হাঠি হাঠি পা পা করে সংগঠনটি ৬ষ্ট বর্ষে উর্ত্তিণ্য হয়েছে, প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে সংগটনের সকল সদস্য বৃন্দ ও শুভাকাংক্ষী দেরকে আমি প্রানঢালা অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। ধন্যবাদ সকলকে।।
সৈয়দ হাফিজ উদ্দীন
প্রতিষ্টাতা সভাপতি -আলোকিত সমাজ কল্যাণ সংস্থা,সৈয়দপুর,জগন্নাথপুর, সুনামগঞ্জ।

এই সংবাদটি 103 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

[latest_post][single_page_category_post]

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com