মঙ্গলবার, ১০ সেপ্টে ২০১৯ ০৯:০৯ ঘণ্টা

ভারতের কাশ্মীর নীতির বিরুদ্ধে বাংলাদেশীদের প্রতিবাদী হওয়া দরকার : মাওলানা ইউসুফী

Share Button

ভারতের কাশ্মীর নীতির বিরুদ্ধে বাংলাদেশীদের প্রতিবাদী হওয়া দরকার : মাওলানা ইউসুফী

সিলেট রিপোর্ট:
জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের অন্যতম সহসভাপতি বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ মাওলানা আবদুর রব ইউসুফী ভারতের কাশ্মীর নীতির বিরুদ্ধে বাংলাদেশীদের কঠোর প্রতিবাদী হওয়ার আহবান জানিয়েছেন। এজন্য তিনি তিনটি কারণ উল্লেখ করেছেন,
( এক) তদানীন্তন ভারত সরকার কর্তৃক কাশ্মীরিদেরকে প্রদত্ত ওয়াদা এবং সাংবিধানিক মর্যাদা বর্তমান সরকার কেড়ে নিয়েছে। এমনকি জাতিসংঘ সনদও সাত দশক ধরে কার্যকর করছেনা। উপরন্তু তাদের উপর সব ধরনের জুলুম নির্যাতন চালিয়ে যাচ্ছে। তাঁরা একে তো মজলুম, আবার মুসলিম, তাই তাঁদের পাশে দাঁড়ানো মানবিক ও দীনি দায়িত্ব।
( দুই ) ভারত আসামের মুসলমানদেরকে সেখান থেকে বের করে বাংলাদেশে পাঠানোর উদ্যোগ নিয়েছে। স্বাভাবিক ভাবেই তাঁরা নিজেদের ভিটে-মাটি ছেড়ে আসতে রাজী হবেনা। তখন তাদের উপরও চালাবে জুলুম-নির্যাতন। বাংলাদেশের পক্ষেও লক্ষ লক্ষ মানুষের দায়িত্ব নেয়া সম্ভব হবেনা। আর অন্য দেশের নাগরিকদের দায়িত্ব নিবেই বা কেন?
( তিন ) আসামের পর ত্রিপুরা, মেঘালয় ও পশ্চিমবঙ্গসহ অন্যান্ন রাজ্যেও এভাবে নাগরিক পঞ্জির নামে মুসলিম বিতাড়নের তৎপরতা শুরু করবে।
এ সব বিবেচনায় নিয়ে প্রয়োজন জাতীয় ঐক্যের। এ দায়িত্ব সরকারের। সরকার কোন কারনে এ উদ্যোগ নিতে ব্যর্থ হলে রাজনৈতিক দল ও সামাজিক সংগঠনসমূহকে এগিয়ে আসতে হবে। আমরা “সর্বদলীয় কাশ্মীর সংহতি ফোরাম” যে উদ্যোগ নিয়েছি, সেটাকে প্রতীকি বলা যায়। তবে এই বিশাল উদ্দেশ্য সফল করতে হলে এর ব্যাপকতা আরো বাড়াতে হবে। সকল মত-পথের লোকদেরকে এর আওতায় নিয়ে আসার চেষ্টা করতে হবে।
এটা মুসলিম জাতির অস্তিত্ব, বাংলাদেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বের প্রশ্ন, একটা অসম বৃহৎ প্রতিবেশী আগ্রাসী শক্তির মোকাবেলার ব্যাপার। জানি না, আমার বার্ধৈক্যের এ অনুভূতি কতটা সাড়া জাগাতে পারবে। যদি ব্যর্থ হই, তবে ডাক দিয়ে গেলাম।

এই সংবাদটি 1,052 বার পড়া হয়েছে

বিশ্বের প্রভাবশালী ১শ নারীর তালিকা প্রকাশ করেছে ফোর্বস ম্যাগজিন। এই তালিকার শীর্ষ একশ নারীর মধ্যে প্রথম অবস্থানে রয়েছেন জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেল। তালিকার ২৯তম অবস্থানে রয়েছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।  বাংলাদেশের ইতিহাসে দীর্ঘকালীন সময় ধরে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা শেখ হাসিনা। তিনি চতুর্থবারের মতো জয়ী হয়ে টানা তিনবার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। গত নির্বাচনে তার দল ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সংসদের ৩শ আসনের মধ্যে ২৮৮টিতেই জয় লাভ করে।  ১৯৮১ সাল থেকে টানা প্রায় ৩৮ বছর ধরে বাংলাদেশের বৃহত্তম রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগের দলীয় প্রধানের দায়িত্ব পালন করছেন শেখ হাসিনা। ১৯৯৬ সালের ২৩ জুন প্রথমবার দেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেন তিনি। এরপর থেকেই শক্ত হাতে দলকে নিয়ন্ত্রণ করছেন শেখ হাসিনা। দেশের খাদ্য নিরাপত্তা, শিক্ষার উন্নয়ন এবং স্বাস্থ্যসেবার প্রতি জোর দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী।  ফোর্বসের তালিকায় প্রভাবশালী শীর্ষ ১০ নারীর তালিকায় আছেন অ্যাঙ্গেলা মেরকেল, ক্রিস্টিনে লেগারদে, নেন্সি পেলোসি, আরসুলা ভন দের লেয়েন, মেরি বারা, মেলিন্ডা গেটস, আবিগেইল জনসন, আনা পেট্রিসিয়া বোটিন, গিনি রোমেটি এবং মেরিলিন হিউসন। ২০১৮ সালে ফোর্বসের প্রভাবশালী ১শ নারীর তালিকায় শেখ হাসিনার অবস্থান ছিল ২৬তম।
বিশ্বের প্রভাবশালী ১শ নারীর তালিকা প্রকাশ করেছে ফোর্বস ম্যাগজিন। এই তালিকার শীর্ষ একশ নারীর মধ্যে প্রথম অবস্থানে রয়েছেন জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেল। তালিকার ২৯তম অবস্থানে রয়েছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশের ইতিহাসে দীর্ঘকালীন সময় ধরে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা শেখ হাসিনা। তিনি চতুর্থবারের মতো জয়ী হয়ে টানা তিনবার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। গত নির্বাচনে তার দল ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সংসদের ৩শ আসনের মধ্যে ২৮৮টিতেই জয় লাভ করে। ১৯৮১ সাল থেকে টানা প্রায় ৩৮ বছর ধরে বাংলাদেশের বৃহত্তম রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগের দলীয় প্রধানের দায়িত্ব পালন করছেন শেখ হাসিনা। ১৯৯৬ সালের ২৩ জুন প্রথমবার দেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেন তিনি। এরপর থেকেই শক্ত হাতে দলকে নিয়ন্ত্রণ করছেন শেখ হাসিনা। দেশের খাদ্য নিরাপত্তা, শিক্ষার উন্নয়ন এবং স্বাস্থ্যসেবার প্রতি জোর দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী। ফোর্বসের তালিকায় প্রভাবশালী শীর্ষ ১০ নারীর তালিকায় আছেন অ্যাঙ্গেলা মেরকেল, ক্রিস্টিনে লেগারদে, নেন্সি পেলোসি, আরসুলা ভন দের লেয়েন, মেরি বারা, মেলিন্ডা গেটস, আবিগেইল জনসন, আনা পেট্রিসিয়া বোটিন, গিনি রোমেটি এবং মেরিলিন হিউসন। ২০১৮ সালে ফোর্বসের প্রভাবশালী ১শ নারীর তালিকায় শেখ হাসিনার অবস্থান ছিল ২৬তম।
WP2FB Auto Publish Powered By : XYZScripts.com