বৃহস্পতিবার, ০৮ ফেব্রু ২০১৮ ০৯:০২ ঘণ্টা

চরমোনাইকে সৈয়দপুরের আলেমদের মানা!

Share Button

চরমোনাইকে সৈয়দপুরের আলেমদের মানা!

   

সিলেট রিপোর্ট: স্থানীয় আলেমদের নিষেধাজ্ঞার কারনেই মুরিদ না করেই ফিরে আসলেন পীরসাহেব চরমোনাই। সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরের ঐতিহ্যবাহী গ্রাম সৈয়দপুরে এঘটনা ঘটে।  জানাযায়, গতকাল (বুধবার ৭ জানুয়ারি) কওমী ধারার আলেম উলামা অধ্যুষিত গ্রাম সৈয়দপুরের হালিচড়া মাঠে আয়োজিত একটি ইসলামী সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপষ্থিত হন ইসলামী আন্দোলনের আমির মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করিম চরমোনাই।  রাত ১১টার দিকে বয়ানশেষে তিনি অন্যান্য স্থানের ন্যায় সেখানেও উন্মুক্ত ময়দানে ”আমবায়াত”বায়াত (মুরিদ) করার জন্য ঘোষণাদেন।   পীরসাহেবের ঘোষণার সাথে সাথেই নির্ধারিত স্বেচ্চাসেবকরা মুরিদ করার জন্য বিশাল জালের ন্যায় কাপড় ছড়িয়ে দিলে স্টেজে উপবিষ্ট আলেমদের পক্ষেথেকে নিষেধ আসে।  এসময় পীর সাহেব বিভ্রত অবস্থায় পড়েযান।   তখন অনেকটা অসহায় হয়ে পীর সাহেব বলেন, ”আমি এখন কী করবো? প্রতিউত্তরে সৈয়দপুর আলিম মাদরাসার অধ্যক্ষ হাফিজ মাওলানা সৈয়দ রেজওয়ান আহমদ ও সৈয়দপুর দারুল হাদীস মাদরাসার প্রাক্তন শিক্ষাসচিব মাওলানা মাসরুর কাসেমী সমশ্বরে বলে উঠেন ”আমাদের গ্রামের লোকজন হক্কানী পীর-বুর্যুগদের হাতে বায়াত আছেন, এখানে বায়াত করতে হবেনা, আপনি মোনাজাত করে চলেযান”! তখন পীরসাহেব সংক্ষিপ্ত মোনাজাত করে অবস্থানস্থল ত্যাগ করেন।  এবিষয়ে অধ্যক্ষ সৈয়দ রেজওয়ান আহমদ সিলেট রিপোর্টকে জানান, আমাদের গ্রামের উলামায়ে কেরামের পক্ষ থেকে এটা আগেই সিদ্ধান্ত ছিলো যে, তিনি শুধূ বয়ান করবেন, মুরিদ নয়,তাই নিজের কর্তব্য মনে করে ভদ্র ভাষায় তাকে বিষয়টি জানানো হয়েছে মাত্র।  ”

এই সংবাদটি 1,791 বার পড়া হয়েছে